fbpx

শরীর সুস্থ-সতেজ রাখার মন্ত্র এখন পালং শাক

শস্য শ্যামলা বাংলার সবুজ ক্ষেতের টাটকা ফসলের মধ্যে থাকে অনেক উপকারী ও অপকারী গুন। আমাদের রোজকার জীবনে ভাতের পাতে শাক একটা গুরুত্বপূর্ণ খাদ্য। রোগমুক্ত জীবনের আশায় সুস্থ থাকতে আমরা সকলেই থালা ভর্তি খাদ্যের সাথে মুঠো ভর্তি ওষুধেই অভ্যস্ত । কিন্তু সবুজ সবজির মধ্যেই লুকিয়ে আছে সতেজ ও ফিট থাকার মন্ত্র। আমাদের খাদ্যাভ্যাসে কিছু বদল ঘটালেই শারীরিক অনেক সমস্যা থেকে আমরা মুক্তি পেতে পারি।
এরকমই এক অপরিহার্য শাক হলো পালং। পালং
◆ উচ্চ রক্তচাপের সমস্যায় অনেকেই ভোগে। পালং শাকে থাকা পটাশিয়াম রক্তচাপের ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করে।
◆ গাঁটে ব্যথা , বাতের ব্যথা , জয়েন্টে ব্যথা অর্থাৎ আর্থ্রাইটিস এর সমস্যায় ও পালং শাক খুবই উপকারী।
◆ পালং শাক আয়রন ও ভিটামিন সি এ ভরপুর। আয়রন রক্তাল্পতা দূর করতে সাহায্য করে।
◆ পালং শাক সহজে হজম করতে সহায়তা করে এবং কোষ্টকাঠিন্য দূর করে পেট পরিস্কার রাখে।
◆ত্বক ভালো রাখতেও এই শাক অপরিহার্য। পালং শাক ও কিছুটা জল মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে মিনিট পনেরো সেটা মুখে লাগিয়ে রাখলে ব্রণের সমস্যা থেকে কিছুটা মুক্তি পাওয়া যায়।
◆ বতর্মানে মেয়েদের ঋতুজনিত সমস্যা প্রবল আকার নিয়েছে। নিয়মিত পালং শাক খেলে প্রতিমাসের ঋতুস্রাবের সমস্যা দূর হয়।
◆ ওজন কমাতেও এই শাকের জুড়ি নেই। পালং শাক, এক টুকরো আদা ও পরিমান মত নুন মিক্সি তে পেস্ট করে সেই মিশ্রণটি পান করলে ওজন কমে। পালং রস
সকল ডাক্তার ও ডায়েটিশিয়ান রা এই জন্যই পালং শাক খাওয়ার কথা বলেন।এই শাকে থাকে প্রচুর ভিটামিন ও মিনারেল। তার মধ্যে ভিটামিন এ, বি২, সি, ই, কে, আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, জিঙ্ক, কপার ও প্রোটিন ইত্যাদি।
পালং শাক ভাজা, পালং পনির এসব পদ ছাড়াও সন্ধ্যে বেলার স্ন্যাক্স খাবার হিসেবে দারুন উপাদেয় পালং শাকের পকড়া। আজ পালং শাকের এই মুখরোচক রেসিপির কথা বলবো।
প্রথমেই কিছুটা পালং শাক কুচি করে কেটে ভালো করে জলে ধুয়ে নিতে হবে। এক কাপ বেসন, আদা বাটা,অল্প রসুন বাটা, শুকনো লংকার গুঁড়ো,এক চিমটি হলুদ, পরিমান মতো নুন একসাথে মিশিয়ে নিয়ে সামান্য জল দিয়ে একটা ব্যাটার তৈরি করে নিতে হবে। তারপর ধুয়ে রাখা পালং শাক কুচি ব্যাটারের মধ্যে দিয়ে ভালো করে মেখে নিতে হবে। মনে রাখতে হবে ব্যাটারটি পাতলা হবে না। এরপর কড়াইতে তেল দিয়ে তা গরম হওয়ার পর পালং শাক মাখাটি গোল গোল মন্ড করে গরম তেলে ছেড়ে দিতে হবে অল্প আঁচে। হালকা লাল করে ভেজে তুলে নিতে হবে।
টমেটো ও চিলি সসের সাথে পরিবেশন করুন পালং শাকের পকড়া।

Leave a Reply