fbpx
Interviews

আড্ডা ও গল্প সাথে Satyam

কে বলেছে আজকালকার জেনারেশন বড্ড কুঁড়ে? আজ আমার সাথে ফোনে এমন একজন ছিলেন, যিনি খুব একটা বেশী দিন নেননি আমাদের অনেকের প্রিয় পাত্র হয়ে উঠতে, তার অভিনয় দক্ষতা দিয়ে। সেটা সিনেমা হোক কি টিভির পর্দা দুটোতেই সমান তালে মাতাচ্ছেন Satyam Bhattacharya.

কেমন আছেন স্যার? Santa month কীভাবে কাটাচ্ছেন?

Ans: ভালো অাছি। কাজে আছি। আর কাজ নিয়ে থাকতেই বেশী প্রেফার করি। আমার শীতকাল খুবই ভালো লাগে, বিশেষ করে কলকাতার শীতকাল। কাজেই Santa মান্থ ভালোই কাটছে। কাজ অকাজ সব মিলিয়েই।

২০১৮-তে কাটানো মেমরেবেল কোনো মোমেন্ট?

Ans: একটা মোমেন্ট বললে ভুল হবে। অনেক গুলোই আছে। ভুমিকন্যা করতে এসে এতো বড় মাপের শিল্পীদের সাথে একসাথে স্ক্রিন শেয়ার করার সবকটা মুহূর্তই ভীষণ memorable এবং cherished.

ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ শুরু করেছিলেন ক্যামেরার পেছনে থেকে, assistant director হিসেবে, কিন্তু প্রথম থেকেই কি ক্যামেরার পেছনেই কাজ করার ইচ্ছেই ছিলো?

Ans: “Hypokrites” আমার নাটকের দলের সাথে কাজ করতে করতে realise করি যে শুধুমাত্র অভিনয় বাদ দিয়ে একটা শিল্পের সাথে যুক্ত সবরকম কাজে যা এক্সাইটমেন্ট আছে তা হয়তো অনেককিছুর থেকে বেশী স্যাটিসফায়িং সেই সুত্রে এবং সিনেমা কি ভাবে বানানো হয় এইটা জানার আর শেখার লোভে ক্যামেরার পেছনে কাজ করা। প্রাইমারি ইচ্ছে অবশ্যই অভিনয় করাই ছিলো।

প্রথম কাজই Sreejit Mukherjee’র সাথে, কেমন ছিলো তার এক্সপেরিয়েন্স?

Ans: Assistant director হিসেবে প্রথম কাজ সৃজিত দার সাথেই। অত্যন্ত কর্মঠ competent এবং কমপ্লিমেন্টিং একটা টিমের সাথে কাজ করেছি, যেই খিদে নিয়ে কাজটা শুরু করি সেই খিদে খানিকটা মিটেছে। তিন বছর Assistant Director-এর কাজ করার পর খিদে তৈরী হয়েছে নিজের সিনেমা বানানোর কাজেই বোঝাই যাই কতোটা ভালো এক্সপেরিএন্স। সৃজিত দা এবং বিরসা দা দুজনের সাথেই কাজ করার ফল এটা।

আপনাকে Kakababu, Rajkahini এসব সিনেমায় খুব কম সময়ের জন্যে দেখা গিয়েছিলো, ক্যামেরার পেছনে কাজ করার ইচ্ছে কি তখন থেকেই শুরু?

Ans: মিশর রহস্যতে আমার assist করার কথা ছিলো, কিন্তু ব্যক্তিগত কিছু কারণে করা হয়ে ওঠেনি। কিন্তু, when the time came, ওরা আমাকে ডেকে পাঠায়, “man in bus”-এর ক্যারেক্টারটা করার জন্য। অ্যান্ড আই ওয়াস সুপার হ্যাপি আর রাজকাহিনি যখন করি তখন আমি অলরেডি সৃজিত দাকে অ্যাসিস্ট করছি, মাই সেকেন্ড ফিল্ম উইথ হিম আফটার নির্বাক।

Satyam Bhattacharya
Satyam Bhattacharya

 

ইতিমধ্যেই বেশ কিছু ডিরেক্টরদের সাথে কাজ করে ফেলেছেন, এনাদের মধ্যে কে সব থেকে পছন্দের ছিলো?

Ans: সবার আলাদা আলাদা কাজের ধরণ, আমি খুশি যে সবার সাথেই আমি অ্যাডজাস্ট করে করতে পেরেছি আজ অব্দি। সৃজিত দা ইজ টাফ আ টাস্কমাস্টার। বিরসা দা খুবই লিবেরাল একজন ডিরেক্টর, গিভস ইউ অল দ্য ফ্রিডম। রানা অাঙ্কল, সুদেষ্ণা আনটি ভীষণ আন্তরিকতা দিয়ে ডিরেক্ট করেন। সপ্তর্ষি (Ghostana’s director) ইজ ভেরি ওপেন টু আইডিয়াস সো ওভারওল সবার সাথে কাজ করাটা একটা বড় পাওয়া, অ্যান্ড আ গ্রেট লারনিং প্রসেস ।

সিনেমা করেছেন, ওয়েব সিরিজ করেছেন, আবার সিরিয়ালও করছেন, কিন্তু কোনটা করায় আপনি সবথেকে বেশী কমফোর্টেবল?

Ans: পেয়িং অল ডিউ রেস্পেক্ট টু এভরি অডিও ভিসুয়াল মিডিয়াম। আমার এখনও নাটকে অভিনয় করাটাই বেশি পছন্দ। ওই এক্সাইটমেন্টের জুড়ি মেলা ভাড়, তারপর যদি কিছু হয়ে তাহলে সিনেমা।

সিনেমা, সিরিয়াল আর ওয়েব সিরিজের মধ্যে আজকাল কোনটা বেশী জনপ্রিয় বলে আপনার মনে হয়?

Ans: টেলিভিশনের জনপ্রিয়তা একদমই কমেনি। এখনও একই রকম পপুলার। দেন কামস্ সিনেমা। অ্যান্ড দেন ওয়েব। আমি পুরোটাই বলছি আমার চার পাশের লোকেদের কথাবার্তা শুনে। বাট আমার মনে হয় ইন নেক্সট 5 ইয়ার্স ওয়েব একটা আলাদা জায়গা করে নেবে। আর সেই প্রসেসটা শুরুও হয়ে গেছে।

আপনার আপকামিং কাজের ব্যাপারে কিছু শেয়ার করতে চান?

Ans: এই মুহূর্তে যতোদিন না ভূমিকন্যা শেষ হচ্ছে ততোদিন অন্য কাজ নিতে পারছি না। তাও অনেকগুলো প্রোজেক্টের কথা চলছে। টেলিভিশন, সিনেমা এবং ওয়েব সব মিলিয়েই। দেখা যাক কি হয়।

কে সবথেকে বেশী ইন্সপায়ার করে?

Ans: শাহরুখ খান। অভিনেতা হিসেবে এবং তার থেকেও বড়ো ওনার জিবনজাত্রা। ওটা যদি কাউকে ইন্সপায়ার না করে, তাহলে জানিনা কি করতে পারে। আর অভিনেতা হিসেবে যারা ইন্সপায়ার করে সেই তালিকা শেষ জব না।

নিজের ছাড়া আর কাদের acting খুব ভালো লাগে?

Ans: প্রথমত বলতে চাই যে আমাকে নিজের acting নিয়ে অনেক কাজ করতে হবে সেটাকে ভালো লাগার জায়গায় নিয়ে যেতে গেলে। সেকেন্ডলি, যাদের acting খুবই ভালো লাগে তারা সেই তালিকার তো ইতি নেই। তবে Rajkumar Rao-এর কাজ খুবই ইন্সপায়ার করে। আর এখানে Ritwik দা, Anirban দা, Sudipta দি, Koushik Sen, এদের কাজও।

ইন্ডাস্ট্রিতে বন্ধু হিসেবে কারো নাম করতে চান, যার থেকে কখনও খুব সাহায্য পেয়েছেন, এবং তাকে ভুলতে চান না?

Ans: ইন্ডাস্ট্রিতে বন্ধু ব্যাপারটা খুব সাব্জেক্টিভ। কিন্তু আমি যাদের সাথেই কাজ করছি as an actor or করেছি as an assistant director সবাই খুবই ভালো বন্ধু হয়ে উঠেছে, আমার আর সবাই হেল্প করেছে যেটুকুই পেরেছি সেটুকু achieve করতে। Infact এখনও করে যাচ্ছে।

“পারফেক্ট ডেট” আসলে আপনার কাছে কি? এমন কি কেউ আছেন যার সাথে আপনি ডেটে যেতে চান?

Ans: গঙ্গার পাড়ে বসে পাউ ভাজি আর আইস-ক্রিম খাওয়া। আর দেদার আড্ডা মারা। Nirbaak-এ কাজ করার সময় আমি Sushmita Sen-এর aura এবং charisma-এ mesmerized হয়ে যাই। যদি কোনদিনও সুযোগ হয় তাহলে ম্যামকে নিয়ে যেতে চাই।

পছন্দের খাবার কি ও অবসর সময় কীভাবে কাটান?

Ans: Biriyani এবং Pork Olypub-এর beef steak টাও দারুণ লাগে। আর অবসর সময় কাটাই mainly সিনেমা এবং ওয়েব সিরিজ দেখে।

আপনার ফ্যানদের জন্যে কোনো মেসেজ?

Ans: আমি মনে করি না আমার এই ইইন্ডাস্ট্রিতে এই কদিনে অতো ফ্যান তৈরী হয়েছে। But এটুকুই বলতে চাই বাংলার দর্শকদের যে ভালো কাজ দেখুন, ভালো কাজ সাপোর্ট করুন। কারণ পুরোটাই আপনাদের entertainment-এর জন্যই আমরা করি।

সবশেষে LaughaLaughi’র জন্যে কোনো মেসেজ?

Ans: LaughaLaughi যে কাজটা করছে সেটা আরও বড় করে করুক। আরও ভালো করুক।

Interview by Olivia Ganguly

Show More

laughalaughi

LaughaLaughi is an entertainment and media publishing platform with collection of jokes, movie reviews and celebrity Interviews

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker