LaughaLaughi

You Create, We Nurture

I got a story to tell

রিতুর নববর্ষ

রিতু, অ্যাই রিতু, কোথায় গেলি ….?

শাপলা ছেলেকে খুঁজে বেড়াচ্ছে পুরো বস্তি টা জুড়ে।

শাপলা খেটে খাওয়া নিম্ন দারিদ্রের একজন মানুষ। যার জীবনের সবটা জুড়ে তার সন্তান, সাত রাজার ধন , একমাত্র মানিক, রিতু। বহুদিন আগেই ওর বাবা দুজন কে ফেলে রেখে চলে গেছে। তারপর থেকে কোনরকম করে একাই মানুষ করছে ছেলেকে। কোনোদিন চাইলেও ছেলেকে ভাল স্কুলে ভর্তি করতে পারেনি অর্থের অভাবে।

হাতের মধ্যে কাঁচালঙ্কা টা নিয়ে দৌঁড়ে তিনরাস্তার মোড়ে চলে আসে শাপলা।

এটাও পড়তে পারেন : আন্তর্জাতিক নারীদিবসে আজকের যুগের মেয়েদের অবস্থান ঠিক কোথায়?

একমাত্র ছেলের জন্য একটু একটু করে টাকা জমিয়ে ছেলের জন্য জামা কিনেছে সে। বাংলার নববর্ষের জন্য। সকাল বেলায় বাজার থেকে জামা টা কিনে এনে ছেলের হাতে দেওয়ার জন্য শাপলা জিজ্ঞেস করেছিল ছেলে কে

— পছন্দ হয়েছে?

– এসব কেন আনতে গেলে মা? আমার দুটো ভালো জামা তো রয়েছে এখনও। ওগুলো তো ছেড়েনি।

— জানি তো বাবা, কিন্তু আমারও তো ইচ্ছে করে বল, তোকে কিছু দিতে। বছরে তো এই একটাই জামা দিতে পারি, তাও প্রতি বছর সম্ভব হয় না। পুজোতে তো দেওয়া হয়ই না, জিনিসপত্রের যা আগুন দাম , সাধ্যের বাইরে। বলে দীর্ঘশ্বাস ফেলে ও। রিতু মা কে সামলানোর জন্য তাড়াতাড়ি করে বলে ওঠে

– – ওমা,তুমি যে আমার সঙ্গে আছো, এটাই তো অনেক মা। দেখো একদিন আমাদের এই সব দুঃখ ঘুচে যাবে।

— সেই আশাতেই তো আছি রে বাপ! তোকে তো সেইভাবে পড়াশোনা টাও শেখাতে পারলাম না যে তুই একটা ভালো কিছু করবি। আজকাল তো পড়াশোনা আর ডিগ্রী ছাড়া ভালো কিছু পাওয়াই যায় না।

– চিন্তা কোরো না মা। সব ঠিক হয়ে যাবে। আমি নিজে কিছু একটা কাজ করে, টাকা জমিয়ে, ঠিক নিজের পড়াশোনা টা করে নেব।

এতগুলো কথা হল ছেলেটার সঙ্গে সকালে। দুপুরে পান্তাভাত খেয়ে যাওয়ার তোড়জোড় করতেই দেখতে পেল রিতু নেই। প্রথমে ভেবেছিল হয়তো বাইরে কোথাও ঘুরতে গেছে। কিন্তু তারপর যখন বুঝল ছেলে বস্তির কোথাও নেই, তখন বাড়ি এসে দেখতে পায়, রিতু তো নেইই, সেই সাথে নেই ওর নতুন জামা টাও।

খুঁজতে খুঁজতে চৌরাস্তার মোড়ে এসে দেখতে পেল ওদের পাশের বাড়ির ছেলে ঝিন্টু কে ওর জামা টা দিচ্ছে রিতু।

ওকে ডাকতে গিয়ে শাপলা শুনল রিতু ঝিন্টু কে কিছু বলছে। সেটা শোনার জন্য ও না ডেকেই চুপ করে যায়। আড়ালে দাঁড়িয়ে শুনতে পায় রিতু বলছে-

তোকে তো বাবা এবারের নববর্ষে কিছু দিতে পারেনি, তুই এই জামা টা রাখ, এটা পড়িস।

– কিন্তু এটা তো তোকে মাসি…

– কিছু হবে না। আমার এখনও দুটো জামা আছে। তুই তো এই একটাই ছেঁড়া জামা কবে থেকে পড়ছিস।

ঝিন্টু র হাতে জামা টা দিয়ে রিতু পেছন ঘুরতে যাবে, ঠিক তখনই শাপলা নিজেকে আড়াল করে আঁচল দিয়ে মুখ ঢেকে কাঁদতে থাকে।

_প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা টা দিতে না পারলেও মানবিক শিক্ষা টা দিতে পেরেছে…._

©Soumi Chakraborty

Facebook Comments Box

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *

গল্প প্রেমী মানুষ আমি। প্রচণ্ড সাহিত্য ভালবাসি। Cultural যা কিছু সবই পছন্দের আমার।