fbpx

LaughaLaughi

"You Create We Nurture"

প্রতিভা কখনও ঘরবন্দি থাকে না: দক্ষিণের তরুণী পাড়ি দিচ্ছে নাসায়

প্রতিভা থাকলে কোনো বাধাবিপত্তি তাকে আটকে রাখতে পারেনা। ভারতের গ্রামেগঞ্জে অনেক প্রতিভাই আছে যা আমাদের সচরাচর চোখে হয়তোবা পড়েনা। তামিলনাড়ুর ছোট্ট গ্রাম থেকে উঠে আসা খুদে প্রতিভা এবার পাড়ি দিচ্ছে নাসায়।

তমিলনাড়ুর একাদশ শ্রেণির ছাত্রী জয়লক্ষ্মী আমেরিকার মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র নাসা যাওয়ার সুযোগ পেয়েছে।

প্রচণ্ড অভাবের সংসার জয়লক্ষ্মী সহ তার পরিবারের চারজনের। বাবা বাড়িতে থাকেন না, একাদশ শ্রেণির এই ছাত্রী বাদাম বেচে, ছাত্র পড়িয়ে যা রোজগার হয়, তা দিয়েই সংসার চালায়। সঙ্গে রয়েছে মানসিক রোগী মা এবং ছোট ভাই। তাই গোটা সংসারের দেখভালও করে এই খুদে প্রতিভা।

এত বাধার পরেও সে পড়াশোনা ছেড়ে দেয়নি। আর সেই মেধাবী মেয়েই এবার পাড়ি দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রে, সেটাও নাসায়। যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্রের বিখ‍্যাত বিজ্ঞানীদের সঙ্গে আলাপচারিতার সুবর্ণ সুযোগ পেয়েছে সে। ছোটবেলা থেকেই বিজ্ঞানের প্রতি ঝোঁক জয়লক্ষ্মীর। বড়ো হয়ে তার আদর্শ এপিজে আব্দুল কালামের মতো হতে চায় সে।

একাদশ শ্রেণির খুদে প্রতিভা এত অভাব–অনটনের পরেও নিজের স্বপ্নকে মরতে দেয়নি । বাবা ছাড়া মানসিক ভারসাম্যহীন মা ও ছোটো ভাইকছ নিয়ে গোটা সংসারের ভার তার ওপরেই। বড় হয়ে বিজ্ঞান নিয়েই পড়াশোনা করবে বলে কোচিং ক্লাস নিয়ে একটু আধটু ইংরেজিও শিখে নিয়েছে জয়লক্ষ্মী।

একেবারে নিজের প্রতিভা ও হাতে গড়া সাফল্যেই মহাকাশচারীদের সঙ্গে দেখা করতে চলেছে সে। সব ঠিকঠাক থাকলে ২০২০ সালের মে মাসে নাসায় যাচ্ছে সে।

কিন্তু কিভাবে এল এত বড়ো সুযোগ! এই প্রসঙ্গে জয়লক্ষ্মী জানায়, একদিন হঠাৎ করেই কাগজের একটা খবরে চোখ আটকে যায়। একটি সংস্থা নাসা যাওয়ার জন্য সব শিক্ষার্থীদের সুযোগ দিতে একটা প্রতিযোগিতা আয়োজন করেছে। খবরটা দেখেই আনন্দে আত্মহারা হয়ে যায় সে। তারপর প্রতিযোগিতার জন্য ফর্ম ফিলআপ করে সে। সবচেয়ে বড়ো কথা, এই পরীক্ষার জন‍্য বাড়িতেই নিজে প্রস্তুতি নিতে থাকে এবং পরীক্ষায় সফল হয়।

পরীক্ষায় সফল হলেও নাসা যাওয়ার জন‍্য খরচ কিন্তু অনেক এবং সমস্যা এখানেই। এই খুদে প্রতিভার পাশে দাঁড়িয়েছেন তার কয়েকজন শিক্ষক আর তার সহপাঠীরা। সবাই মিলে পাসপোর্ট বানিয়ে দিয়েছে তার এবং পাসপোর্ট অফিসারও তাকে কিছু টাকা দিয়ে সাহায্য করেছেন। যদিও এখনও অনেক টাকার দরকার। এর জন্য জেলা শাসকের কাছে আর্থিক সাহায্যের আর্জি জানিয়েছে জয়লক্ষ্মী। এছাড়াও ওএনজিসি থেকেও সাহায্য পেয়েছে সে। সর্বোপরি প্রতিভাকে চার দেওয়ালের মধ‍্যে আটকে থাকেনা, প্রতিভার বিকাশ হবেই।

Leave a Reply

Ads Blocker Image Powered by Code Help Pro
Ads Blocker Detected!!!

We have detected that you are using extensions to block ads. Please support us by disabling these ads blocker.

Refresh