বলতে নেই

বলতে নেই, সব কথা সবাইকে বলতে নেই।
সব কথা সবার কাছে প্রকাশ করতে নেই,
কারন সেই কথার ভিত্তিতেই সে তোমাকে আঘাত হানতে পারে।
তোমার দূর্বলতার সুযোগ,সে এই কথাগুলো থেকেই নিতে পারে।
তাই, কিছুটা ব্যাক্তিগত রাখতেও জানতে হয়।

(ছবি:- সংগৃহীত)

যার কাছে তুমি অজান্তেই নিজেকে সঁপে দিয়েছো,
এবং যাকে তুমি মনে করছো, সে তোমার সব দুঃখ ভুলিয়ে দেবে….
না, দেখবে সে-ই তোমাকে আরও বেশি কষ্ট দেবে।
তোমারই দুঃখগুলো অস্ত্র করে, তোমাকেই ঘুরে আঘাত করবে।
কারন তুমি নিজেই তাকে, তোমাকে ভাঙার পদ্ধতিটা বর্ননা করে দিয়েছো। তাই সব কথা সবাইকে বলতে নেই।

(ছবি:- সংগৃহিত)

কাউকে এক নিমেষেই কাছের বন্ধু বলতে নেই।
আজ যাকে বন্ধু ভেবে গুরুত্ব দেবে, কাল সে-ই এসে তোমাকে অবহেলা করবে।
হ্যাঁ,এটাই বাস্তব।
কেউ তোমাকে বাড়িয়ে দুটো মিষ্টি কথা বললেই, ওমনি তোমাকে তার কাছে পেট খুলে দিতে হবে, এমনটা কখনোই করোনা।
তাহলে ভুলটা তুমিই করবে।
তাই জেনে শুনে কাউকে সুযোগ দেওয়া উচিত নয়।
তোমার দূর্বলতা গুলোর ডায়েরির কথা কাউকে বলতে নেই।
তোমাকে যে যতটুকু প্রাধান্য দেবে, তুমি ঠিক ততোটুকুই মিশবে, তার বেশি নয়।

(ছবি:- সংগৃহীত)

আজ যাকে তুমি সবার সাথে বিরোধিতা করে বাঁচানোর জন্য ছুটছো,
কাল সে-ই তোমাকে বিপদে ফেলে সবাইকে নিয়ে হাসবে।
তাই, বিশ্বাস করা ভালো, তবে অন্ধবিশ্বাসটা ভয়ঙ্কর।
যখন-তখন, এবং যাকে-তাকে তোমার মূল্যবান ভালোবাসা দিয়ে বসোনা,
কারন সবাই তার যোগ্যতা রাখেনা।
যে যতোটা যোগ্যতা রাখে, তাকে তার থেকে বেশি দিলেই তুমি মরবে।
ভালোবাসার কদর করতে, সবাই পারেনা।তাই ভালোবাসার কথা সবাইকেই বলতে নেই।

(ছবি:- সংগৃহীত)

একজনের কথা অন্যকে না বলে, বরং যার দোষ, তাকেই বলা উচিত,
কারন মুখের ওপর ভুল এবং ঠিক বলার সাহস সবার থাকেনা।
এর জন্য তুমি অনেকের কাছে খারাপ হলেও, তোমাকে ভাঙার ক্ষমতা কারোর থাকবেনা।
নিজের প্রতি বিশ্বাস হারিয়ে ফেলোনা,নইলে
অন্য কারোর,তোমাকে ঠকাতে খুব সহজ হয়ে যাবে।

এটাও পড়ুন- কাদম্বরী দেবীর শেষ চিঠি

তুমি যদি কারোর ব্যবহারে কষ্ট পেয়ে থাকো,তাহলে তার জন্য তুমিই দায়ী।
কেউ যদি তোমাকে অপমান এবং অসম্মান করে,
তাহলে তার দোষ তোমার-ই ,তার নয়।
কারন তাকে সেই জায়গাটা তুমিই করে দিয়েছো।
তাই নিজের ভালোটা নিজেকেই বুঝতে শেখো।
নিজেকে এমন ভাবে শক্ত রেখো, যাতে অন্য কেউ এসে তোমার মন ভাঙার সাহস না পায়।
নিজেকে নিজেই ভালোবাসতে শেখো, কারন সেই ভালোবাসা ভাঙার ক্ষমতা কারোর নেই।
কারোর না।