রবি ঠাকুর

রবি ঠাকুর

আজ ২২ শে শ্রাবণ।
আকাশ জুড়ে মনখারাপি মেঘের আনাগোনা…
তোমার গান আমার কানে।
ছোট থেকেই তোমার প্রতি আমার গভীর অনুরাগ,
ঠাকুর বলতে আমি তোমায় জেনেছি,
আমার আনন্দ, বেদনা, ভয়ে তুমিই আমার আশ্রয়।

যদি তুমি এই একবিংশ শতাব্দীতে থাকতে,
আমিও তোমায় অনুরোধ করতাম ঠাকুর—
একটা সাধারণ মেয়ের গল্প লেখো,
তোমার কলম তাকে করুক অসামান্যা।

এই যুগে কালো মেয়েকে কেউ ‘কৃষ্ণকলি’ বলেনা।
তার দু’চোখের দৃষ্টিতে থমকে যায়না কেউ।
তার জন্য রাস্তায় কেউ প্রতীক্ষা করেনা।
কালো মেয়ে এখনও বাবার বোঝা।
পণের ভারেই তাকে মুক্ত করতে হয়।

অন্তত তোমার লেখনীতে তুমি তাকে আলাপ করিয়ে দিও ‘সন্দীপ’-এর সাথে।
তাকেও শিখিয়ে দিও আগল ভাঙার মন্ত্র।
সেও যাতে মেরুদণ্ড সোজা করে দাঁড়াতে পারে।
সংসার থেকেও সে হয়ে উঠবে দূরদর্শী।

রূপ তার নাই থাক ‘বিনোদিনী’ কিংবা ‘লাবণ্য’-এর মতো।
তার অন্তরটাকে প্রশস্ত করে তুলো।
এই সাধারণাই যেন অসাধারণ হয়ে ওঠে।
সেই অসাধারণ হওয়ার কৃতিত্ব হোক তোমারই।
শুধু সেই সাধারণারা আর এক স্বপ্ন দেখুক অসামান্যা হওয়ার।

না হয় সে স্রোতের বিপরীতেই হাঁটুক।
সমাজকে বুড়ো আঙুল দেখাক।
সেই হোক নিয়ম বাঁধার কারিগর।
তাকে তুমি তোমার লেখনীতে করে তুলো অসামান্যা।

Comments

comments

Post Author: Archita Bhattacharjee

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *