fbpx

দেবী-পক্ষ

দেবী-পক্ষ “আশ্বিনে ওই শরতে, সাজানো পুষ্পরথে.. গিরিরাজ কন্যা উমা, আসবে পিতার ঘরে।” শ্যামল পোটো গান গায়তে গায়তে ডাক পাড়লো, দেবী…,,, ও দেবী… আয় তো মা,

অভিমানী অভিমান

অভিমানী মন পোড়ায় আজ জুঁই ফুলের গন্ধরা আঁকি বুকি কাটছে সব নিরুত্তাপ  কবিতারা ক্লান্ত হয় সব  মনখারাপ  ঘুমের দেশে এলে বসি আমি তখন শান্ত মনে

নিজেকে ভালোবাসতে শিখেছি এবার

আমার নিজেকে ভালোবাসাটা আগে দরকার। যে আমিকে, কোনো বাইরের কেউ গড়ে তোলোনি, সেই আমি কে ভাঙার ক্ষমতা যে কারোর থাকতে পারেনা। তিলে তিলে আমি নিজেকে

প্রনয় আমর্শে প্রতিধ্বনি: এক প্রতিধ্বনির গল্প

এ এক সাধারণের আমর্শে রচিত হৃদকমলের সাধারণ গল্প নহে কোনো পৃথক সমাহার আবার নহে অতি সাধারণ গল্প   পাথর মাঝে হঠাৎ প্রাণ প্রতিভাসিত, রৌদ্রী তোমার

অনুরাগের সংজ্ঞা তোমার জানা নেই

অনুরাগের সংজ্ঞা তোমার জানা নেই, তোমার প্রেমিক হওয়ার জোগ্যতাই নেই। অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে যে মেয়েটা মুখের ওপর কথা বললে, যদি  তোমার তাকে অসভ্য এবং বাজে

ভাষা ও রঙ

ভাষার বড্ড অহঙ্কার, প্রকাশ করে প্রতিবাদ, গলা চিড়ে, কখনোবা লেখনীতে, তীব্র সোচ্চারে, ধ্রুপদী ধাঁচে। মনের মিলে,  মনের কাছে। রঙটা বড্ড আঠালো, কেমন যেন মিশিয়ে থাকে,

মনের গহীনে ডুবুরিরা

– আমাদের সম্পর্কের আয়ু বেড়েছে গভীরতা এসেছে তারপরেও জানিস রাই তোকে মাঝে মাঝে কোথাও গিয়ে অচেনা লাগে। সবকিছু মসৃণ থেকেও কিছু একটা যেন নেই..মনের থেকে