fbpx
I got a story to tell

হিরো

আজ একটা গল্প বলব। না না শিক্ষামূলক না, এমনি বৃষ্টিমুখর সন্ধ্যায় তেলেভাজা সহযোগে গল্প-আড্ডা স্বাস্থ্যের পক্ষে খুব আনন্দদায়ক।
একটা গ্রাম ছিল, এমনি আর পাঁচটা গ্রামের মতই আরকি। চারিদিকে মনোরম পরিবেশ, সবুজ মাঠ, গরুর গাড়ি , কাঁচা রাস্তা ইত্যাদি ইত্যাদি। চাষবাস করে গ্রামের মানুষগুলোর বেশ স্বাচ্ছন্দে খেয়ে পড়ে দিন কেটে যায়। যারা বলে চাষীরা গরিব নয় তারা ঠিকই বলে। কিন্তু আরো অনেক ব্যাপার আছে যেমন ভাগ চাষী, খামার পরিদর্শক, ফসল ঝাড়ার কাজও অনেকেই করেন। এদেরও ওই চাষীই বলা হয়, ওই যেমন ‘কল সেন্টার’ বা ‘সফ্টওয়ার ডেভলোপার’ হিসেবে যারা কাজ করেন, সবাইকেই ‘আই.টি’ কর্মী ধরা হয় তেমনি আর কি। তো একবার বর্ষায় ভগবান একটু বেশিই দয়ালু হয়ে অতিরিক্ত বৃষ্টি দিয়ে দিলেন যাতে সবারই দুঃখ একটু কমে যায় এবং ভালো ফসল হয়। ঘটলো উল্টোটা। বর্ষার জেরে বন্যা কবলিত এলাকায় পরিণত হল গ্রামটি। সব জায়গার সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন, খাবার যা ছিল সব জলে নষ্ট হয়ে গেলো। সবাই এবার খাবে কি? সবার মাথায় চিন্তার ভাজ। সবাই গাছের ডালে, স্কুলের ছাদে আশ্রয় নিলো। কিন্তু এইভাবে কতদিন কাটানো যায়?

আজকাল সবাই স্মার্ট ফোন ব্যবহার করে। আর যায় হয়ে যাক ফোনটিকে কেউ হাতছাড়া করেনা। আর ফেসবুক তো সবাই করে আর ‘জিও’-র দৌলতে সবাই ‘জি’ ভোরে নেট করে। তো তাদের মধ্যে কেউ একজন বন্যা কবলিত জায়গার ছবি নিয়ে ফেসবুকে দিয়ে দিলো। কয়েকমুহূর্তেই পোস্ট ভাইরাল। বুদ্ধিজীবীরা যে যার মত কমেন্ট করতে লাগলো নিজেদের পাবলিসিটি বাড়ানোর জন্য। এই সরকার দায়ী, দেশ কোরাপ্ট, সরকারি চাকরি নেই, বেকারত্ব, এই করা দরকার, ওই করা দরকার ইত্যাদি ইত্যাদি। সবার কমেন্টে একগাদা করে লাইক, ফ্রেন্ড রিকুয়েস্টের বহর, এবং রাতারাতি ‘ফেসবুক স্টার’ হয়ে গেলেন। তারপর খেয়ে দিয়ে এ.সি চালিয়ে ঘুমোতে চলে গেল।
তবে কয়েকটা ছেলে খবরটা পেয়ে রাতারাতি ঝাঁপিয়ে পড়লো। না না জলে নয়, সাহায্য করতে। তৈরী হয়ে গেল ফেসবুক পেজ, এবং বন্যা ত্রাণ। যতটা পারা যায় সাহায্য করলো, অনেকে আর অনেকে নিজস্ব মতামত দিয়েই ক্ষান্ত থাকলো। এরপর তারা বন্যা ত্রাণ সংগৃহিত জিনিসপত্র ওই গ্রামে পাঠানোর ব্যবস্থা করে গ্রামবাসীদের কাছে হিরো হয়ে উঠলো।
পুনশ্চ : দক্ষিণ দিনাজপুর বর্তমানে বন্যা কবলিত। ফেসবুকে প্রচুর ভাইরাল হয়েছে অনেক পোস্ট। এবার আপনি ভাবুন শুধু লাইক, কমেন্ট, শেয়ার আর বড় বড় বাতেলা দিয়ে ফেসবুক ষ্টার হতে চান নাকি ফেসবুক ব্যবহার করে রিয়্যাল লাইফ হিরো হতে চান

Show More

শয়তান

অটোবায়োগ্রাফি যখন লিখব তখন পড়ে নেবেন ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker