fbpx
CreativityI got a story to tell

একঘেয়েমি লকডাউনে স্বস্তির নিশ্বাস রবি ঠাকুরের গান।

লকডাউনের জেরে মানুষ এখন ‘গৃহবাসী’। ‘দ্বার’ খোলাই এখন যেন মানা। মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রায় থাবা বসিয়েছে কোভিড ১৯। তাই এই একঘেয়েমি কাটাতে ‘পাড়া রেডিও’ নামক অভিনব উদ‍্যোগ নিয়েছেন কলকাতা পৌরসভার ১০১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর।

করোনার কবল প্রায় দুমাস যাবৎ ঘরবন্দি সমগ্র দেশের মানুষ। বাঙালির রোজনামচা তেও থাবা বসিয়েছে করোনা ভাইরাস। সাতসকালের মর্নিং ওয়াক থেকে শুরু করে সান্ধ‍্য আড্ডা সবটাই এখন ঘরে বসেই করতে হচ্ছে। এমনকি নববর্ষ কেও স্বাগত জানাতে হয়েছে ঘরে বসেই। বিশেষ করে মাঝবয়সী ও বয়ঃজ‍্যাষ্ঠো দের বৈশাখী আড্ডাতেও ভাটা পড়েছে।

এই একঘেয়েমির ওষুধ একমাত্র রবি ঠাকুর। হ‍্যাঁ, এই রবি ঠাকুর ই শত শত বাঙালির ভগবান। তাই তাঁর গানকেই একঘেয়েমি কাটানোর ওষুধ হিসেবে মনে করছেন জনপ্রতিনিধিরা। তার গানের আবহেই ‘পাড়া রেডিও’ নামক উদ্যোগ নিয়েছেন ১০১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর বাপ্পাদিত্য দাশগুপ্ত।

ওয়ার্ডটিতে প্রায় ৫২ টি সাউন্ড বক্স লাগানো হয়েছে। এছাড়াও মেইন রোডের ধারে প্রায় ৫০টি মাইক লাগানো হয়েছে। সঙ্গে চালু করা হয়েছে টোল ফ্রি নাম্বার, যার মাধ‍্যমে নিজের পছন্দসই গানের আবদার রাখতে পারছেন সাধারণ নাগরিকরা। বিকেল পাঁচটা থেকে রাত্রি সাড়ে আটটা পর্যন্ত শোনানো হচ্ছে গান। রবীন্দ্রসঙ্গীত ছাড়াও মান্না দে, অতুলপ্রসাদের গানও শোনানো হচ্ছে। আর ফাঁকে ফাঁকে চলছে সচেতনতার বার্তা।

বাঙালির মনে প্রাণে রবি ঠাকুরের অবস্থান। আমাদের জীবনজুড়ে তাঁর বিচরণ অনন্ত। রবি ঠাকুরের প্রতি বাঙালির আবেগ রয়েছে অনেক। তাইতো এখনো মানুষটার প্রেমে পড়েন সমস্ত বয়সের মানুষ। তাঁর রচনা বাংলা সাহিত‍্যকে বিশ্ব দরবারে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। জীবদ্দশায় তিনি তাঁর সাহিত‍্য ভাঁড়ার এতোটাই সমৃদ্ধ করেছেন যে এক জীবনে একটি মানুষের পক্ষে তা উদ্ধার করা একপ্রকার অসম্ভব।

তাঁর গান ও সুরকে বাঙালি তথা ভারতবর্ষ এখনো সাদরে গ্রহণ করে এবং ভবিষ্যতেও গ্রহণ করবে বলেই মনে হয়। কারণ তাঁর সৃষ্টি চিরন্তন। মহামারি কবলিত দেশে একঘেয়েমি কাটানোর এটি যে একটি দারুণ উদ‍্যোগ তা বলাই বাহুল‍্য। এই মহামারির দিনগুলোতেও অবসাদ কাটাতে বেছে নেওয়া হয়েছে বাঙালির অতিপ্রিয় রবীন্দ্রনাথকেই। যুগ বদলায়, মানুষ বদলায়, কিন্তু মানুষের অভ‍্যন্তরে অবস্থিত রবীন্দ্রসত্তাটা চিরন্তন ধ্রুবক।

করোনার কবলে ভারতে এই মূহুর্তে প্রায় ৫০০০০ আক্রান্ত, মৃতের সংখ‍্যা প্রায় ২০০০ ছুঁইছুঁই। সরকারের পরবর্তী পদক্ষেপ কি হবে তা নিয়ে সংশয়ে আছেন জনগন। সমস্ত কিছুই একটা বড়সড় অনিশ্চয়তায় কাটছে। এরই মধ‍্যে একটুকরো স্বস্তি নিয়ে এসেছে রবি ঠাকুরের গান।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker